সীতাকুন্ডে পিএইচপি ও কেএসআরএম এর জায়গা বুঝিয়ে দিলো রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ।

Total Views : 159
Zoom In Zoom Out Read Later Print

সীতাকুন্ডে পিএইচপি ও কেএসআরএম এর জায়গা বুঝিয়ে দিলো রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ । সীতাকুন্ড উপজেলার বাড়বকুন্ড এলাকায় পিএইচপির জায়গায় অবৈধভাবে দেওয়া খুঁটি ও কাঁটা তারের বেড়া অবশেষে তুলে নিল কবির স্টিল রি-রোলিং মিলস (কেএসআরএম) কর্তৃপক্ষ।

সীতাকুন্ডে পিএইচপি ও কেএসআরএম এর জায়গা বুঝিয়ে দিলো রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ।  সীতাকুন্ড উপজেলার বাড়বকুন্ড এলাকায় পিএইচপির জায়গায় অবৈধভাবে দেওয়া খুঁটি ও কাঁটা তারের বেড়া অবশেষে তুলে নিল কবির স্টিল রি-রোলিং মিলস (কেএসআরএম) কর্তৃপক্ষ। গত ( ১৬/০৫/২০১৮ইং ) বুধবার রেলওয়ের গঠিত কমিটির সদস্য, স্থানীয় প্রশাসন এবং পিএইচপি ও কেএসআরএম গ্রুপের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে কাঁটা তারের বেড়া ও বাঁশের খুঁটি তুলে নিয়ে অবৈধভাবে দখলে থাকা জায়গা বুঝিয়ে দেয় কেএসআরএম। পরে পিএইচপির লিজ নেওয়া জায়গায় খুঁটি দিয়ে সীমানা নির্ধারণ করে দেন বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা (সদর) লুৎফুন্নাহার বলেন, সীতাকুন্ডের বাড়বকুন্ড - এলাকায় রেলওয়ে থেকে পিএইচপির নেওয়া লিজের কিছু জায়গা দখল করেছিল কেএসআরএম। বিষয়টি নিয়ে দুই শিল্প গ্রুপের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়েছিল। বিষয়টি নিরসনে প্রধান ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করে দেন। বুধবার (১৬ মে '১৮ ইং) আমরা সেখানে গিয়ে উভয়পক্ষের জায়গা বুঝিয়ে দিয়েছি। বর্তমানে এখন আর কোন বিরোধ নেই। উভয় পক্ষ রেল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছেন। তিনি বলেন, পিএইচপির লিজ নেওয়া জায়গায় এসে কেএসআরএম ৫৯ দশমিক ৮০ শতক অবৈধভাবে দখলে নিয়ে খুঁটি ও কাঁটা তারের বেড়া দিয়েছিল। পিএইচপি ফ্যামিলির জিএম (ভূমি) আমির হোসেন বলেন, ‘পিএইচপির প্রায় ৬০ শতক জায়গা সন্ত্রাসী দিয়ে জোর করে দীর্ঘ ৪৮দিন জবরদখল করেছিল কেএসআরএম। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সুবিচার প্রত্যাশা করেছিলাম। গতকাল বুধবার ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা লুৎফুন্নাহারের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের কমিটি আমাদের জায়গা বুঝিয়ে দিয়েছেন।’ এদিকে কেএসআরএম-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘আমাদের সাথে পিএইচপি’র জায়গায় সংক্রান্ত যে বিরোধ ছিল তা রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যস্থায় নিস্পত্তি হয়েছে। রেলওয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী বিরোধপূর্ণ জায়গা থেকে বুধবার খুটি ও বেড়া সরিয়ে নেয়া হয়।’ গত ২৯ মার্চ আকস্মিকভাবে পিএইচপির মালিকানাধীন জায়গায় কংক্রিটের পিলার ও কাঁটা তারের বেড়া দেয় কেএসআরএম। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ পিলার তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিলে কিছুটা পেছনে সরে গিয়ে বাঁশের খুঁটির সাথে কাঁটা তারের বেড়া দেয় কেএসআরএম।

See More

Latest Photos