ফটিকছড়িতে অা'লীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৬, উত্তপ্ত এলাকা

Total Views : 286
Zoom In Zoom Out Read Later Print

....


সাইফুর রহমান সোহান:

'''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''

ফটিকছড়িতে অা'লীগের দু'গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অন্তত ৬ নেতা-কর্মী গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সোমবার (১০ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার নানুপুর বাজারে মহজোট মনোনীত নৌকার প্রার্থী সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী ও বিদ্রোহী প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলামের সমর্থকদের মাঝে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত সাড়ে ৮ টার দিকে উভয় পক্ষ পাল্টা-পাল্টি মিছিল দেওয়ার সময় দু'গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এক পর্যায়ে এক পক্ষের গুলিতে অাহত হয় ৬ নেতা-কর্মী। গুলিবিদ্ধরা হলেন, ১. সাবেক ছাত্রনেতা অাব্দুল কুদ্দুস (৫০) পিতা: মৃত কবির অাহমদ, ধর্মপুর, ২. কাকন(২৭), পিতা: নুরুজ্জামান, মাইজভান্ডার, পাঠান পাড়া, নানুপুর,

৩.ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ সৌরভ হোসেন (২৫), পিতা: সৈয়দ শওকত হোসেন, নানুপুর সৈয়দ পাড়া, ৪. অা'লীগ নেতা সৈয়দ এমদাদ হোসেন (৫৬), পিতা: সৈয়দ ওসমান জামান, সৈয়দ পাড়া, নানুপুর, ৫. ছাত্রলীগ নেতা রাসেদ অালম (২৫), পিতা: খুরশেদুল অালম, ঢালকাটা, নানুপুর, ৬. যুবলীগ নেতা অাজম (২৬), পিতা: নুরুল ইসলাম, দৌলতপুর, নাজিরহাট পৌরসভা।

গুলিবিদ্ধরা সবাই নৌকার সমর্থক বলে জানা গেছে। তাদেরকে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে নাজিরহাটস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে অাসা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। কর্তব্যরত  চিকিৎসক তাদের শরীরের বিভিন্ন অংশে গুলিবিদ্ধ হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে। এছাড়াও এ ঘটনায় উভয় পক্ষের অারো অন্তত ২০ জন নেতা-কর্মী অাহত হয়েছে বলে জানা যায়। 

এ সময় গুলিবিদ্ধ যুবলীগ নেতা অাব্দুল কুদ্দুস এ প্রতিবেদককে অভিযোগ করে বলেন, 'অামরা নাজিরহাটে নৌকার সমর্থনে সংবাদ সম্মেলন শেষে নানুপুর বাজারে এসে মিছিল করছিলাম। অামাদের মিছিলে বাঁধা দিয়ে হঠাৎ অতর্কিতভাবে উপজেলা অা'লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দীন মুহুরী অামাদের উদ্দেশ্য করে গুলি করে। এতে অামিসহ ৬ নেতা-কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা অা'লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দীন মুহুরী অভিযোগ অস্বীকার করে  বলেন, 'অামরা অামাদের প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলামসহ অামাদের উপজেলা অা'লীগের সহ-সভাপতি কাজী মাহমুদুল হকের বাড়ীতে হামলার হুমকীর খবর পেয়ে দেখে এসে ফেরার পথে নানুপুর বাজারে অাসলে তারা অামাদের উপর অাক্রমণ করে। অামরা কারো উপর অাক্রমণ করিনি। গুলি করার প্রশ্নই অাসেনা।' 

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) অাব্দুল্লাহ অাল মাসুম বলেন, 'খবরটি শুনেছি। তবে এখনো পুরো বিষয়ে জানি না বলে কোন মন্তব্য করতে পারছিনা।'

See More

Latest Photos