জাবেদই জনপ্রিয়তার শীর্ষে,পুনরায় এমপি হিসেবে পেতে চাই আনোয়ারা ও কর্নফুলীর জনগন

Total Views : 42
Zoom In Zoom Out Read Later Print

নিউজ ডেস্ক

আনোয়ারা-কর্ণফুলীতে সরকারের টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ব্যাপক উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। অবহেলিত আনোয়ারা ও কর্ণফুলী জনপদে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পগুলো বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতায় বাস্তবায়ন করেছে ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পুনরায় সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদকে চায় ভোটাররা। 

 

ভোটাররা বলছে, উপজেলায় কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এখনও অনেক কাজ চলমান রয়েছে, চলমান কাজ সম্পন্ন করতে আবারও আমরা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জাবেদকে জয়ী করবো। 

 

ইতোমধ্যে আনোয়ারায় গড়ে উঠছে চীনা রফতানি প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চল। ৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত হয়েছে ৩৯০তম সর্বকনিষ্ঠ নতুন কর্ণফুলী উপজেলা। পর্যটন মন্ত্রাণালয়ের অধীনে এখানে ১৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে থ্রি অথবা ফোরস্টার মানের হোটেলসহ অত্যাধুনিক পর্যটন স্পট হতে চলেছে। বিশ্বের সব দেশের পর্যটকেরা ভীড় করবে পারকি সমুদ্র সৈকতের তীরে। 

 

জানা যায়, সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে আনোয়ারায় ৩ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে বেড়িবাঁধের জন্য আরো ২৮০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করেছে। দেশের প্রধান সমুদ্রবন্দরকে ঘিরে বন্দরের অদূরেই আনোয়ারা উপজেলার গহিরা এলাকায় বিশেষ অর্থনৈতিক জোন স্থাপনের জন্য ৭শ’ ৭৪ একর জমি ব্যবহারের জন্য গত সেপ্টেম্বরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে। এর মধ্যদিয়ে শিল্পায়ন, বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে সম্ভাবনার একটি নতুন দ্বার উন্মোচন হয়েছে। বিশেষ অর্থনৈতিক জোন প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ৫৩ হাজার ৪২০ জন লোকের কর্মসংস্থানের পথ সুগম হবে বলে আশা প্রকাশ করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

 

আনোয়ারা অর্থনেতিক জোনের অবকাঠামো নির্মাণে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৪শ’ ২০ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। অর্থনৈতিক জোনের জন্য ২শ’ ৯১ একর খাস জমির দলিল সম্পাদন করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। কর্ণফুলী উপজেলা নির্মাণে প্রাথমিকভাবে ৫০০ কোটি টাকার বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

 

এদিকে দেশের উদীয়মান ও রফতানিমুখী জাহাজ নির্মাণ শিল্প, ইলেকট্রিক ও ইলেট্রনিকস পণ্যসামগ্রী ও সিমেন্ট শিল্পকে সর্বাধিক প্রাধান্য দিয়ে আনোয়ারায় বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলটি গড়ে তোলা হবে। সেখানে ৩শ’ ৭১টি শিল্প-কারখানা স্থাপন করা সম্ভব হবে। এরমধ্যে ২৫০টি জাহাজ নির্মাণ শিল্পের জন্য বরাদ্দ থাকবে।

See More

Latest Photos