শাটল ট্রেনের বগি বৃদ্ধির দাবিতে চবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

Total Views : 167
Zoom In Zoom Out Read Later Print

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ।।

শাটল ট্রেনের বগি বৃদ্ধি দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শিক্ষার্থীরা। আজ দুপুর সাড়ে ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনে এ সমাবেশ করে তারা। একই দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের একত্মতা ঘোষণা করে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও প্রগতিশীল ছাত্রজোট।সভা শেষে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে চবি উপাচার্যের কাছে তাদের দাবি পেশ করে।

বক্তারা নিরাপদ শাটলের দাবি জানিয়ে বলেন, শাটলের বগি বৃদ্ধি ও সংস্কারের দাবি দীর্ঘদিনের। কিন্তু রেলওয়ে ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিষয়টি তেমন গুরুত্ব দেয়নি। এই গুরুত্বহীনতার ফলে শাটল আজ মালবাহী ট্রেনে পরিণত হয়েছে।

বিক্ষাভ মিছিলের সময় শিক্ষার্থীদের ‘এক দফা এক দাবি, শাটলের বগি বৃদ্ধি’, দাবি মোদের একটাই ১২ বগির শাটল চাই’, ‘জেগেছে রে জেগেছে, ছাত্রসমাজ জেগেছে’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে শোনা যায়।

আমার ভাইয়ের পা গেল, প্রশাসন চুপ কেন?', 'না ঝরলে রক্ত,কেন হয় না বিবেক জাগ্রত? প্রশাসন জবাব চাই',শাটলে হাগু কেন? প্রশাসন জবাব চাই?', শাটল ট্রেনে মালবাহি বগি, ছাত্র-ছাত্রী ভুক্তভোগী', ইত্যাদি লেখা প্ল্যার্কাড নিয়ে আসেন তারা।

রবিউলের সহপাঠীরাও এতে অংশ নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন৷ জাকারিয়া হোসেন নামে তার এক সহপাঠী বলেন, শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত মাঠে থাকবো। রবিউলের চিকিৎসার ব্যয়ভার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে নিতে হবে। পাশাপাশি তাকে চাকরিও প্রদান করতে হবে।

শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনে ছাত্রলীগ পাশে থাকবে জানিয়ে ছাত্রলীগের নেতারা বলেন, যে শিক্ষার্থীদের জন্য এই বিশ্ববিদ্যালয় সেই শিক্ষার্থীরা বছরের পর বছর ভুগছে। প্রশাসন এ ব্যাপারে তেমন কোন অগ্রগতি দেখাতে পারছেনা।

বক্তারা আরো বলেন, আমরা আর কোন সহপাঠীর দূর্ঘটনা দেখতে চাই না। শাটল ট্রেন শুধু চবি শিক্ষার্থীদের জন্য অথচ আমরা সবসময় দেখি অসংখ্য বহিরাগত উঠে সিট দখল করে বসে থাকতে। শাটলে বহিরাগত কেউ যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য নিরাপত্তা ব্যাবস্তা জোরদার করতে হবে। নিরাপদ শাটল নিশ্চিত করার পাশাপাশি প্রতিটি ট্রেনে ১২টি বগি দিতে হবে। এছাড়া পুরনো বগিগুলোও সংস্কার করতে হবে। এসময় রবিউলকে পুনর্বাসনের দাবিও জানান তারা।

চবি ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী সুজনের সঞ্চালনায় সাবেক সহ-সভাপতি সৌমেন দাশ জুয়েল, যুগ্ম সম্পাদক আবু তোরাব পরশ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক, উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু, উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক ইমাম উদ্দিন ফয়সাল পারভেজ, উপ-বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক রকিবুল হাসান দিনার ও ছাত্রলীগ নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় প্রমুখ বক্তব্য রাখেন৷

এদিকে মানববন্ধন ও সমাবেশ শেষে সাধারণ শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে উপাচার্য কার্যালয়ে যায়। মিছিলটি আই.টি ভবনের সামনে এলে হঠাৎ করে হট্টগোল বাঁধে। মিছিলে সামনে দাঁড়ানোকে কেন্দ্র করেই এই ঘটনার সূত্রপাত বলে জানা যায়। এ নিয়ে দুই দফা কথা কাটাকাটি হয়। পরবর্তীতে ছাত্রলীগের নেতারা উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর কাছে মৌখিকভাবে দাবিগুলো জানায়। এই সময় উপাচার্য তাদের দাবিগুলো দ্রুত সমাধানের আশ্বাস জানায়।



এর আগে বুধবার সকালে চট্টগ্রামের বটতলী স্টেশন থেকে ছেড়ে আসা বিশ্ববিদ্যালয়গামী সকাল আটটার শাটল ট্রেনটি নগরীর ষোলশহর রেলস্টেশনে পৌঁছালে দুর্ঘটনায় দুই পা হারান চবি ছাত্র রবিউল। আহত রবিউল আলম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র। তার বাড়ি কক্সবাজার জেলার টেকনাফে।

See More

Latest Photos