চিটাঙ্গে মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে ছাগল কাহিনি - হাসান আকবর

Total Views : 218
Zoom In Zoom Out Read Later Print

বিডি ক্রাইম নিউজ ডেস্ক

ছাগল কাহিনী...,.,


‘ফকিন্ন্যির পুতেরা এইটা ছাগল দিছে??এত ছোট ছাগলও মানুষ দেয়!! আমার মা বাপ দেখলে গালাগালি করবে।’ কথাগুলো মাস কয়েক আগে বিয়ে করা এক বরের। কোরবানি উপলক্ষে  শ্বশুর বাড়ি থেকে পাঠানো খাশিতে খুশী হননি তিনি। ‘ফকিন্ন্যির পুত’ হচ্ছেন তার অভাগা স্ত্রীর হতভাগ্য পিতা। নিজে হয়তো এবার কোরবানি করতে পারছেন না। হয়তো নিজের অন্য সন্তানদের জন্য কিছু করতে পারেননি। এই করোনাকালে হয়তো বেতনও পাননি। চাকরি আছে কিনা কে জানে!! তবুও শ্বশুর বাড়িতে অভাগী কন্যার সুখের কথা চিন্তা করে এগার হাজার টাকা দিয়ে কুচকুচে কালো একটি খাশি কিনেন। এই টাকা সুদে ধার করেননি তো??? কষ্ট করে যোগাড় করা টাকায় কেনা সুন্দর খাশিটি পাঠান মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে। 

আহা, মেয়ের সুখ বলে কথা! মেয়ের হাসিমাখা মায়াবী মুখটি বাবার অন্তরে উজ্জ্বল হয়ে উঠে। 


কিন্তু জামাই বাবাজি ছাগল দেখেই শুরু করেন হম্বিতম্বি। ফকিন্ন্যির পুত——। 

শ্বশুর বাড়ি থেকে ছাগল নিয়ে আসা লোকজন ফিরতি পথ ধরতেই জামাই বাবা ছাগলের দড়ি টেনে হাজির হলেন স্থানীয় বাজারে। ছাগলটি সাড়ে নয় হাজার টাকায় বিক্রি করে শ্বশুরের পিন্ডি চটকাতে চটকাতে শ্বশুরেরই টাকায় চা সিঙ্গারা খেতে লাগলেন। ঘরের অবৈতনিক বুয়া শ্বশুরের অভাগিনী রাজকন্যা কি এই ছাগল কাহিনী জানে!!!

See More

Latest Photos